খেলাধুলা

অর্থাভাবে অনিশ্চিত দেশের তিন মার্শাল আর্ট প্রতিযোগীর মালয়েশিয়ায় অংশগ্রহন

ওরা কি যেতে পারবে ১৯ তম ওয়ার্ল্ড পেঞ্চাক সিলাত চ্যাম্পিয়নশীপ প্রতিযোগিতায়? আগামী ২৬-৩১ জুলাই মালয়েশিয়ার মেলাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ১৯ তম ওয়ার্ল্ড পেঞ্চাক সিলাত চ্যাম্পিয়নশীপ প্রতিযোগিতা। যেখানে ৮৩ টি দেশের খেলোয়াড়রা এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিবে। অংশ নিবে লাল সবুজ পতাকার বাংলাদেশও। আর বিশ্বমঞ্চের এত বড় আসরে লাল সবুজের পতাকা উচিয়ে ধরতে বাংলাদেশের হয়ে তিন ক্যাটাগড়িতে লড়বে নয়জন খেলোয়াড় । বিশ্ব মঞ্চে জানান দিবে নিজেদের সেই সাথে প্রতিনিধিত্ব করবে জন্মভুমির।

এই ৯ জনের তিনজন রাজশাহীর। তার হলেন চাঁদ মোঃ রকি, তৌহিদুল আলম রাকিব ও ইমতিয়াজ আহমেদ। এত বড় একটি ফর্মে যুক্ত হয়ে দেশের পতাকা হাতে পারফর্ম করবে বিশ্বমঞ্চে তাতে তারা নিজেরা যেমন খুশি তেমনি খুশি পরিবার সহ সবাই। কিন্তু খেলোয়াড়দের অংশ গ্রহণ করতে হবে নিজ উদ্যোগে আর তাতেই কপালে পড়েছে চিন্তার ভাঁজ। কারণ তারা কোথায় পাবে এত টাকা। তাই অর্থাভাবে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে ১৯তম ওয়ার্ল্ড পেঞ্চাক সিলাত চ্যাম্পিয়নশীপ প্রতিযোগিতায় রাজশাহীর তিনজন মার্শাল আর্ট খেলোয়ারের অংশগ্রহণ। এতে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন হতদরিদ্র ঘরের এই তিন খেলোযাড়।

এত বড় একটি  প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণের আমন্ত্রণ পাওয়ায় খুশি এলাকাবাসী। তাই এলাকাবাসীসহ সংশ্লিষ্টদের দাবি  দেশের সুনাম বয়ে আনতে তাদের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হউক।

আর তাদের পরিবারের সদস্যরা বলছেন, বিশ্বকাপে সুযোগ পাওয়া  দেশের জন্য অনেক গর্বের। তাই সরকারসহ সংশ্লিষ্চদের উচিত এই  খেলোয়াড়দের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে  আর্থিক  সহযোগীতা করা।

এদিকে বাংলাদেশ পেঞ্চাক সিলাত এসোসিয়েসনের  সাধারণ সম্পাদক এ এস এম তাহমিদুল হক জুয়েল বলেন,এটি জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ বা যুব ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ে সরাসরি অনুমোদিত হলে কিছুটা আর্থিক সহযোগীতা পাওয়ার সম্ভবনা ছিল।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button