আখাউড়ায় এবছর লিচুর ভাল ফলনে খুশি কৃষকরা

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি: মো: মোশারফ হোসেন কবির 

আখাউড়ায় এবছর লিচুর ভাল ফলনে খুশি কৃষকরা, রসালো, সুমিষ্ট ও মুখরোচক ফল হিসেবে লিচু পছন্দ বাঙালি সবশ্রেণীর মানুষের কাছে, খড়ার কারনে কিছু কিছু বাগানে ফলন ভাল না হলেও  উপজেলায় ৩টি ইউনিয়নে প্রায় শতাধিক লিচু বাগানে চলতি মৌসুমে লিচুর বাম্পার ফলন হয়েছে। ফলন ভাল হওয়ার জন্য কৃষকদের সবধরনের পরামর্শ ও সহযোগিতা করা হচ্ছে বলে জানান উপজেলা কৃষি বিভাগ, আর বাগানের সৌন্দর্য উপভোগ করতে প্রতিদিন জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আসছে ভ্রমন পিপাসু পর্যটক ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় বানিজ্যিক ভিত্তিতে লিচুর চাষ শুরু হয়েছে বিগত কয়েক যুগ আগে থেকে। উপজেলার মনিয়ন্দ, আখাউড়া উত্তর ও দক্ষিণ ইউনিয়নের ধর্মনগর, কর্মমঠ, রাজমঙ্গলপুর, নোয়ামুড়া, ঘাগুটিয়া, শিবনগর, খারকোট, মিনারকোট, আজমপুর, আমোদাবাদ, রামধন নগর, চানপুর, রাজাপুর, কল্যানপুর, আনোয়ারপুর, হীরাপুর, কুড়িপাইকা, আব্দুল্লাপুর সহ আখাউড়ায় প্রায় অর্ধশতাদিক গ্রামের লিচুর চাষ হয়ে থাকে।

এ উপজেলায় উৎপাদিত লিচুর মধ্যে রয়েছে, পাটনাই, বোম্বাই, এলাচি, চায়না-২, চায়না-৩, বেদানা ও স্থানীয় জাতের লিচু। এখানকার মাটি লিচু চাষের উপযোগী হওয়ায় চলতি মৌসুমে লিচুর ভাল ফলন হয়েছে, এছাড়াও লিচু বিক্রি করে ন্যায্য মুল্য পেয়ে খুশি এখানকার চাষিরা।

আখাউড়ার লিচু রসালো ও সুমিষ্ট হওয়ায় জেলার বাইরেও এর বেশ কদর রয়েছে। প্রকারভেদে বাগানথেকে ১শত লিচু বিক্রি হচ্ছে ২০০-৩০০ টাকা দরে। যোগাযোগ ব্যাবস্থা অনেকটা ভালো হওয়ায় দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পাইকার এসে তা নিয়ে যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। বাগানের সৌন্দর্য উপভোগ করতে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আসছে ভ্রমণ পিপাসু পর্যটক।

খরা ও অনাবৃষ্টির কারণে কিছু কিছু বাগানে ফলন কম হলেও উৎকৃষ্ট লিচু উৎপাদনে কৃষকদের সবধরনের পরামর্শ ও সহযোগিতা করা হচ্ছে বলে জানান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শাহানা বেগম। কৃষি অফিসের তথ্যমতে এই উপজেলায় ২৭০হেক্টর জমিতে ফল চাষ হয়ে থাকে, তার মধ্যে চলতি মৌসুমে প্রায় ৭০হেক্টর জমিতে লিচু আবাদের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button