গাংনীতে আন্দোলনের মুখে শিক্ষার্থীদের টাকা ফেরত দিলেন প্রধান শিক্ষক

মেহেরপুর প্রতিনিধি 

মেহেরপুরের গাংনীতে আন্দোলনের পর ছাত্রদের ফরম পূরণের টাকা ফেরত দিলেন প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেন। মঙ্গলবার সকাল ১০ টার দিকে গাংনী পাইলট স্কুল এন্ড কলেজ চত্বরে এসএসসি ফরম পূরণের টাকা ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ,মানববন্ধন ও প্রতিবাদ করেন শিক্ষার্থীরা। এরপর টাকা ফেরত দিতে নির্দেশ দেয় প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেন।

এসএসসি পাস করা শিক্ষার্থী মাহফুজ ইসলাম বিজয় ও মুকুল হোসেন বলেন,২০২১ সালে গাংনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২২১ জন শিক্ষার্থী ফরম পূরণ করার পর করোনা দুর্যোগের কারণে সিলেবাস সংক্ষিপ্ত করে পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। শিক্ষাবোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের প্রায় সাড়ে ৫শ’ টাকা করে মোট এক লক্ষ ২২ হাজার টাকা ফেরত দেওয়ার কথা থাকলেও প্রধান শিক্ষক অজ্ঞাত কারণে টাকা ফেরত না দিয়ে শিক্ষার্থীদের হয়রানি করছে। বিভিন্ন সময় টাকা চাইতে গেলে প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেন উত্তেজিত হয়ে রূঢ় আচরন করে রুম থেকে বের করে দেন। অবশেষে বাধ্য হয়ে বিক্ষোভ,মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করার পর টাকা ফেরত দিতে শুরু করেছে।

শিক্ষার্থী মুস্তাক আহমেদ ও সুমাইয়া খাতুন বলেন, গাংনী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করে বিভিন্ন কলেজে ভর্তি হয়ে পড়াশোনা করছেন তারা। সব সময় তাদের পক্ষে প্রধান শিক্ষকের কাছে টাকা চাইতে স্কুলে আসার সম্ভব হয়ে ওঠেনা। এরপরও বিভিন্ন সময়ে টাকা চাইতে গেলে প্রধান শিক্ষকের অশোভন আচরণের মুখে পড়তে হয়। একপ্রকার বাধ্য হয়ে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ, প্রতিবাদে ও মানববন্ধন করে।

গাংনী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মীর হাবিবুল বাশার জানান, সরকারি বিধি মোতাবেক টাকা ফেরত দেওয়ার কথা। টাকা ফেরত না দিলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রধান শিক্ষক মোঃ আফজাল হোসেন বলেন, শিক্ষার্থীরা কখনোই আমার কাছে টাকা নিতে আসেনি।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড যশোর এর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্র বলেন, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে স্কুলগুলোতে ফরম পূরণের টাকা ফেরত দেয়া হয়েছে। যদি কোনো প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের টাকা ফেরত না দেয় তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button