ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে চাঁদাবজি ও মারধরের অভিযোগ

মেহেদী হাসান শ্যামল, রাজশাহী ব্যুরো।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গরিব মেধাবী শিক্ষার্থী সামছুল ইসলামকে মারধর ও  টাকা কেড়ে নেয়ার  ঘটনা ঘটেছে ।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট ) বিকালে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার রুমে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন ভুক্তোভোগী শিক্ষার্থী। তিনি রাত ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা এম তারেক নূরের কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেন।

সামসুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ও মতিহার হলের ১৫৯ নম্বর রুমের আবাসিক শিক্ষার্থী।

সামছুল ইসলাম জানান। পড়াশোনার পাশাপাশি মোবাইল সার্ভিসিং করে জীবিকা নির্বাহ করেন এবং পরিবার চালান৷ গত ১৫ আগস্ট মতিহার হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ভাস্কর সাহা তাকে ফোন দিয়ে দেখা করার কথা বলেন। পরে দেখা করলে ভাস্কর চাঁদা দাবি করেন। এরপর টাকার জন্য প্রতিনিয়ত ফোন দেন এবং মানসিকভাবে টর্চার করতে থাকেন। টাকা দিতে না পারায় বিকাল ৩টায় ভাস্কর সাহা সামছুলকে রুমে ডেকে নেন। সেখানে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত আটকে রেখে রড ও স্ট্যাম্প দিয়ে মারধর করেন।

নির্যাতনের বিষয়ে সামছুল বলেন, ‌‘ভাস্কর আমাকে চাকু ঠেকিয়ে সঙ্গে থাকা ২০ হাজার টাকা কেড়ে নেয়। বিষয়টি কাউকে জানালে আবরারের মতো আমার অবস্থা করার হুমকি দেয় সে। এ অবস্থায় আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

তবে  মারধর ও টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে মতিহার হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ভাস্কর সাহা।

এদিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী সামসুল ইসলামকে মারধর ও লাঞ্ছিতোর ঘটনায়  সোমবার সকালে মানববন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা ।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কিক্ষক শিক্ষার্থীরা বলেন সামছুল ইসলামের মতন আর কতো শিক্ষার্থী এমন ঘটনারা শিকার হবে ।

শোকের এই আগস্ট মাসেই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় বেশ কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে।  সর্বশেষ ভাস্কর সাহা কর্তৃক সাধারণ ছাত্র শামসুলের ওপরে  টর্চারের ঘটনাটি সকলকে মর্মাহত করেছে, বক্তারা আরো বলেন পূর্বের ঘটে যাওয়া ঘটনা তদন্ত বা আইনি ব্যবস্থা না নেওয়ায় বারবার এই ঘটনাগুলো ঘটছে।

এ বিষয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা তারেক নূরের কাছে টেলিফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে, অভিযুক্ত ভাস্কর সাহার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রমাণ হলেই  তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

 

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button