রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় বিশ্ব সম্প্রদায়ের ভূমিকায় হতাশ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

নাসির উদ্দিন

রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় থেকে প্রত্যাশিত সহযোগিতা মিলছে না বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। দুপুরে ‘বাংলাদেশ ও ইন্দো-প্যাসিফিক অগ্রাধিকার’ শীর্ষক সেমিনারে এমন অভিযোগ করেন তিনি।

বলেন, বড় দেশগুলোর মধ্যে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল নিয়ে প্রতিযোগিতা আছে। তবে বাংলাদেশ নিজেদের স্বার্থ ও নীতি মাথায় রেখে পথ চলবে। এদিকে, বিশ্লেষকরা বলছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন এবং অর্থনীতি এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে ইন্দো-প্যাসিফিক জোট।

ইন্দো-প্যাসিফিক স্ট্র্যাটেজি বা আইপিএস মূলত ভারত মহাসাগর এবং প্রশান্ত মহাসাগরের দুটি অঞ্চল। যা আমেরিকার পশ্চিম উপকূল থেকে ভারতের পশ্চিম উপকূল পর্যন্ত বিস্তৃত। দক্ষিণ এশিয়া ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার সংযোগস্থলে থাকা বাংলাদেশও আছে ইন্দো প্যাসিফিক অঞ্চলের কেন্দ্রে।

গুরুত্ব বিবেচনায় বাংলাদেশকে এই জোটে দেখতে চাইছে যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্তর্ভুক্ত অনেক দেশ। এ বিষয়ে আয়োজিত সংলাপে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের কর্মকৌশল তুলে ধরেন বিভিন্ন দেশ ও জোটের প্রতিনিধিরা।

অর্থনীতির পাশাপাশি নিরাপত্তা সহযোগিতা এবং বিশেষ করে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া চাঙ্গা করতেও এ জোটের ভূমিকা দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে জোটে অর্ন্তভুক্তির আগে দেশের স্বার্থ বিবেচনায় রাখার পরামর্শ দিলেন তারা।

অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, আন্তঃরাষ্ট্রীয় হ্স্তক্ষেপে অনেক বড় সমস্যা সমাধান হলেও ঝুলে আছে কেবল রোহিঙ্গা সংকট। রোহিঙ্গা শিবিরের অস্থিরতা উল্লেখ করে তিনি বলেন, নিরাপত্তা ইস্যুতে কোন ছাড় দেবে না বাংলাদেশ।

প্রতিমন্ত্রী জানান, নীতিগতভাবে শান্তিপূর্ণ ইন্দো-প্যাসিফিক জোটে যেতে নিজস্ব কর্মকৌশল প্রণয়ন করছে ঢাকা।বাংলাদেশ, বিভিন্ন আঞ্চলিক সংগঠনের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানে বিশ্বাস করে বলেও জানান পররাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button