স্বপ্নের মেট্টোরেলে প্রথম যাত্রা

অনলাইন ডেস্ক

ফলক উন্মোচনের মধ্য দিয়ে মেট্টোরেলের যুগে যাত্রা শুরু হল বাংলাদেশের । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উত্তরা থেকে মেট্টোরেলে যাত্রার শুভ উদ্বোধন করেন এবং প্রথম যাত্রী হিসেবে উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে  মেট্টেরেলে যাত্রা করে আগারগাঁও স্টেশনে এসে পৌছান ।

এর মধ্য দিয়ে রাজধানীর উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশে চালু হলো মেট্রোরেল। মেট্রোরেলে ভ্রমণ করতে হলে লাগবে টিকিট। টিকিটের ক্ষেত্রে দেওয়া হবে দুই ধরনের কার্ড। একক যাত্রা কার্ড ও স্থায়ী কার্ড। একক যাত্রা কার্ড প্রতিটি ভ্রমণের সময় টিকিট কাউন্টার এবং টিকিট বিক্রয় মেশিন থেকে নেওয়া যাবে। আর যারা মেট্রোরেলে চলাচলের জন্য বারবার কার্ড নেওয়ার ঝামেলা এড়াতে চান তারা নিতে পারবেন এমআরটি পাস বা র‌্যাপিড পাস।

১০ বছর মেয়াদী এমআরটি পাস বা র‌্যাপিড পাসের জন্য ২০০ টাকা দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে । এই কার্ডে প্রয়োজনমতো টাকা রিচার্জ করে যাতায়াত করা যাবে । বৃহস্পতিবার ডিএমটিসিএলের ওয়েবসাইটে নিবন্ধনের লিংক পাওয়া যাবে । এক যাত্রার (সিঙ্গেল জার্নি) কার্ডের জন্য নিবন্ধন লাগবে না। স্টেশন থেকে এই কার্ড কিনেই আসা-যাওয়া করা যাবে। তবে ট্রেন থেকে নামার সময় কার্ড রেখে দেওয়া হবে। স্টেশনের টিকিট অফিস মেশিন (টিওএম) থেকে বিক্রয়কর্মীর সহায়তায় কার্ড কেনা যাবে।

এ ছাড়া ভেন্ডিং মেশিন থেকে যাত্রীরা নিজেরাই স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন। সরকার মেট্রোরেলের সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারণ করেছে ২০ টাকা। এরপর প্রতি দুই স্টেশন পর ১০ টাকা ভাড়া যোগ হবে

 

 

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button