পুলিশকে সাবধান হতে বললেন রুমিন ফারহানা

মোঃ শাহজাদা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

বিএনপির আন্তজার্তিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা এমপি বলেছেন, শন্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে গুলি করে ছাত্রদল নেতা নয়নকে হত্যা করা হয়েছে। এ ধরণের হত্যাকান্ডের ইতিপূর্বে র‌্যাবের উপর সেংশান হয়েছে সুতরায় পুলিশ ভাইয়েরা সাবধান হয়ে যান। নয়ন হত্যার বিচার বাংলার মাটিতেই হবে।

তিনি আরো বলেন, ১৯৭২ থেকে ৭৫ আওয়ালীগের দুশাসন মানুষ কিন্তু ভুলে নাই। জাতীয় ও আন্তজার্তিক চক্রান্তে ভোট কারচুপির মাধ্যমে ২০০৮ সালে ক্ষমতায় এসেছেন। তারপর থেকে বিনা ভোটে লিলজ্জর মত ক্ষমতায় বসে আছেন। আপনারা মনে করেছেন এর জবাব দিতে হবে না। সব কিছুুর হিসাব আমরা নিব। কেন আমার হাজার হাজার ভাইকে গত ১৪ বছরে বিনা দোষে হত্যা করা হয়েছে। কেন আমার ভাইদের গুম করা হয়েছে।

আপনারা যেভাবে ২০১৪ ও ১৮ তে বিনাভোটে লুটপাটের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসছেন। মনে কইরেন না ২০২৪ সালে সেই ওয়াকওভার পাবেন। বাংলাদেশের মানুষ আপনাদের সমুচিত জবাব দেবে। বুধবার দুপুরে উপজেলার সোনারামপুর ইউনিয়নের চরশিবপুর গ্রামে নিহত নয়নের বাড়িতে তার, মা, স্ত্রী ও পরিবারবর্গের সাথে দেখা করে তাদের প্রতি সমবেদনা জানানোর পর এক জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় নেতাকর্মীদের গণতন্ত্রের আন্দোলনে শরীক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গোয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সঠিকভাবে গণতন্ত্রের যুদ্ধ করতে পারলে এ ধরণের পুলিশ খালে, বিলে ও নদীতে ভেসে যাবে। তিনি বলেন, নয়নের রক্ত বৃথা যাবে না। জনগনের আদালতেই নয়ন হত্যার বিচার হবে।

প্রতিনিধি দলে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট রফিক শিকদার, সাবেক এমপি এম এ খালেক, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দর উপস্থিত ছিলেন। প্রতিনিধি দলের পক্ষ থেকে নিহত নয়নের পরিবারের জন্য ২ লাখ টাকার আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, গেল ১৯ নভেম্বর বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে আগামী ২৬ নভেম্বর কুমিল­ার বিএনপি বিভাগীয় সমাবেশ সফলে লিফলেট বিতরণকালে পুলিশের গুলিতে সোনারামপুর ইউনিয়ন ছাত্রদলের সহসভাপতি নয়ন নিহত হয়।

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button