বান্দরবানের থানচিতে বাড়ছে ডায়রিয়া, এক সপ্তাহে আটজনের মৃত্যু

বান্দরবান প্রতিনিধি

বান্দরবানে থানচি উপজেলার মিয়ানমার সীমান্তের কাছাকাছি দুর্গম রেমাক্রি ইউনিয়নে গত এক সপ্তাহে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে আটজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

থানচি উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৬০কিলোমিটার দুরত্বে দুর্গম রেমাক্রি ইউনিয়নের ৬নম্বর ওয়ার্ডে ৬জুন থেকে পাড়াবাসী ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হতে শুরু করে,সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয় নারিচ্যা পাড়ায়। এছাড়া ইয়ংনং পাড়া,উছোমং পাড়া,চিংসং পাড়া ও মেনতাং পাড়ায়ও ডায়রিয়ার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে।

নদী ও ছড়ার দূষিত পানি পান করায় বিভিন্ন পাড়ায় ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়ে বলে জানিয়েছে রেমাক্রি ইউপি চেয়ারম্যান মুইসুইথুই মারমা। তিনি জানান, ডায়রিয়া আক্রান্ত পাড়াগুলো অত্যন্ত দুর্গম, মিয়ানমারের সীমান্তের কাছাকাছি, ইঞ্জিন চালিত নৌকাছাড়া সেখানে যোগাযোগের কোনো ব্যবস্থা নেই। মোবাইল নেটওর্য়াক না থাকায় কতজন আক্রান্ত হয়েছে তা জানাও কঠিন হয়ে পড়েছে, তবে অর্ধশতাধিক নারী পুরুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে।

এদিকে কয়েকদিন ধরে দুর্গম এলাকায় ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধির সংবাদে স্বাস্থ্য বিভাগের কয়েকটি চিকিৎসক দল দুর্গম এলাকায় গিয়ে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করছে আর আক্রান্তদের ওরস্যালাইন,বিশুদ্ধ পানিসহ প্রয়োজনীয় ওষুধ প্রদান করছে। আক্রান্ত অনেকেই থানচি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি হয়ে চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করছে।

এদিকে দুর্গমতার কারণে বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট ও স্বাস্থ্যসস্মত স্যানিটেশনের অপ্রতুলতা কারণে পাহাড়ে এই সময়টা ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পেলে ও স্বাস্থ্যবিভাগ এর কর্মীরা আক্রান্ত পাড়াগুলোতে সেবা প্রদানের জন্য কাজ করছে বলে জানান সিভিল সার্জন ডা: নীহার রঞ্জন নন্দী।

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button