বিনোদন

লৌহ কপাট বিতর্ক : ক্ষমা চাইলেন নির্মাতারা

মোহনা অনলাইন

বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম রচিত, ‘কারার ওই লৌহ কপাট..’ গানটিকে কেন্দ্র করে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছেন ভারতের অস্কারজয়ী সঙ্গীত পরিচালক এ আর রহমান। সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ভারতীয় সিনেমা ‘পিপ্পা’-তে গানটি ব্যবহার করা হয়েছে। গানের কথা এক থাকলেও বদলে ফেলা হয়েছে সুর, তাল, লয়, ছন্দ। বিষয়টি নিয়ে ভারত-বাংলাদেশ দুই দেশেই উঠেছে নিন্দার ঝড়। বিতর্কের মধ্যে অবশেষে মুখ খুললেন ছবির নির্মাতারা।

গত শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ওটিটি চ্যানেল অ্যামাজন প্রাইম-এ মুক্তি পেয়েছে ‘পিপ্পা’। বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধের সময়ে ভারতীয় সেনার ৪৫ কাভালরি রেজিমেন্ট-এর ক্যাপ্টেন বলরাম সিং মেহেতার জীবনী অবলম্বনে সিনেমাটি বানিয়েছেন পরিচালক রাধাকৃষ্ণ মেনন। সিনেমাটি মুক্তির পর থেকেই বিতর্ক শুরু হয়েছে নজরুলগীতি ‘কারার ওই লৌহ কপাট’ নিয়ে। কেন এভাবে সুর, তাল বদলে ফেলা হল, সেই নিয়ে সরব সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বিশিষ্ট জনেরা।

গুগল নিউজে ফলো করুন Mohona TV গুগল নিউজে ফলো করুন Mohona TV

সোমবার বিকালে এই বিতর্ককে মাথায় রেখে বিবৃতি দিলেন ‘পিপ্পা’ ছবির অন্যতম প্রযোজক সিদ্ধার্থ রয় কপূর (রয় কপূর ফিল্মস)। এই প্রসঙ্গে সমাজমাধ্যমের পাতায় একটি পোস্ট করে তারা। সেখানে লেখা হয়েছে, ‘‘এই গানকে ঘিরে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, সেখানে প্রযোজক, পরিচালক এবং সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে আমরা নজরুল পরিবারের থেকে প্রয়োজনীয় স্বত্ব নেওয়ার পরেই শিল্পের খাতিরে গানটিকে তৈরি করেছি।’’

এরই সঙ্গে নির্মাতারা লিখেছেন, ‘‘নজরুল ইসলাম এবং তাঁর সৃষ্টির প্রতি আমাদের মনে গভীর শ্রদ্ধা রয়েছে।’’ এরই সঙ্গে নজরুলের পুত্রবধূ কল্যাণী কাজী এবং তাঁর পুত্র কাজী অনির্বাণের থেকে যাবতীয় নিয়ম মেনে যে এই গানের স্বত্ব নেওয়া হয়েছিল সে কথাও ওই বিবৃতি জানানো হয়েছে। উল্লেখযোগ্য বিষয়, এর আগে নজরুল পরিবারের তরফে আনন্দবাজার অনলাইনকে অনির্বাণ জানান যে, গানের কথা ব্যবহার করা হলেও সুর বদলানো যাবে না এই মর্মেই তাঁরা নির্মাতাদের স্বত্ব দিয়েছিলেন। কিন্তু বিবৃতিতে রায় কপূর ফিল্মস জানিয়েছেন, ‘‘গানটির ঐতিহাসিক তাৎপর্যকে শ্রদ্ধা জানানোই আমাদের উদ্দেশ্য ছিল। গানের কথা ব্যবহার এবং সুরের পরিবর্তন চুক্তি অনুযায়ী করা হয়েছে।’’

সব শেষে ওই বিবৃতিতে লেখা হয়েছে, ‘‘আমরা মূল গানটিকে ঘিরে শ্রোতাদের আবেগকে সম্মান করি। শিল্প যে হেতু ব্যক্তিগত দৃষ্টিভঙ্গির উপর নির্ভরশীল, সেখানে আমাদের পদক্ষেপ যদি কারও আবেগে আঘাত করে থাকে, তার জন্য আমরা ক্ষমাপ্রার্থী।’’ নির্মাতাদের তরফে ক্ষমা চাওয়া হয়েছে। আগামী দিনে স্বয়ং রহমান এই বিতর্কে কোনও প্রতিক্রিয়া দেন কি না, সেটাই দেখার।

author avatar
Prianka Ghosh SEO
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button