শ্রীপুরে সবজি ক্ষেতের গরু তাড়াতে গিয়ে বেধড়ক মার খেলেন ইমাম!

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধি

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার রাজাবাড়ি ইউনিয়নের বিন্দুবাড়ি জিওসী এলাকায় সবজি ক্ষেত থেকে গরু তাড়াতে গিয়ে বেধড়ক মারধরের শিকার হয়েছেন আব্দুল মালেক মোল্লা নামের আশিরোর্ধ এক বৃদ্ধ। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।
রোববার সন্ধ্যার দিকে এ ঘটনার পর রাত সাড়ে দশটার দিকে আহত আব্দুল মালেকের জামাতা জালাল উদ্দিন বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
মারধরের শিকার আব্দুল মালেক মোল্লা বিন্দুবাড়ি গ্রামের জিওসী এলাকার মৃত আহমদ আলী মোল্লার ছেলে। তিনি জিওসী জামে মসজিদ ও জিওসী ঈদগাঁ-র সাবেক ইমাম।
ভুক্তভোগী ও থানায় দেওয়া অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, বাড়ির পাশের সবজির ক্ষেত নষ্ট করছিল কয়েকটি গরু। আব্দুল মালেক ওই গরু তাড়াতে গেলে স্থানীয় মৃত তাহের আলীর ছেলে বোরহান উদ্দিন ও বোরহানের ছেলে শাকিল তাঁর ওপর চড়াও হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আব্দুল মালেককে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম করে। এসময় মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে ডাক চিৎকার শুরু করে আব্দুল মালেক।  পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসার জন্য ভর্তি করানো হয়।
অভিযোগকারী জালাল উদ্দিন জানান, দীর্ঘদিন ধরেই নানা বিষয় নিয়ে আমার শ্বশুর আব্দুল মালেকের সাথে শত্রুতা পোষণ করে আসছেন বোরহান উদ্দিন ও তার পরিবার । মাঝে মধ্যেই গায়ে লেগে ঝগড়া করতে আসে। বয়োঃবৃদ্ধ এ মানুষটিকে এভাবে মারধর কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায়না৷ এ ঘটনার সঠিক বিচার চাই।
এদিকে, এলাকার বয়োজ্যেষ্ঠ একজন ইমামকে মারধরের ঘটনায় ক্ষোভ বিরাজ করছে স্থানীয়দের মধ্যে। তাঁরা হাসপাতাল গিয়ে রোগীকে দেখে মর্মাহত হয়েছেন। জানিয়েছেন প্রতিবাদও।
এ বিষয়ে বক্তব্য নেওয়ার প্রয়োজনে অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাদের পাওয়া যায়নি।
শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক (এস.আই) অমল চন্দ্র সরকার মোহনা টেলিভিশন অনলাইনকে বলেন, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্তের পর উর্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তী আইনী প্রক্রিয়া গ্রহন করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button