খেলতে গিয়ে বটিতে পায়ের তলায় কেটে আহত শিশু, পল্লী চিকিৎসায় মৃত্যু!

আলফাজ সরকার আকাশ শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি

গাজীপুরের শ্রীপুরে খেলতে গিয়ে বটিতে পায়ের তলায় কেটে পল্লী চিকিৎসা দেওয়ার এক ঘন্টা পর সিয়াম ইসলাম নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে পৌর এলাকার চন্নাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সিয়াম ইসলাম (৪) উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের বদনিভাঙ্গা গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে। সে চন্নাপাড়া এলাকায় তাঁর নানা রাফেল মিয়ার বাড়িতে থাকতো। তাঁর মা সেতু আক্তার স্থানীয় একটি পোশাক কারখানার চাকরি করেন।

সিয়ামের নানা রাফেল মিয়া জানান, বটিতে পা কেটে গিয়ে আহত অবস্থায় সিয়ামকে পার্শ্ববর্তী রাহুল ডাক্তারের ফার্মেসিতে নিয়ে যাই। সেখানে দুটি ইনজেকশন দিয়ে পায়ের তলায় দশটি সেলাই দিয়ে ব্যান্ডেজ করে ছেড়ে দেয়। তার কিছুক্ষণ পর সিয়ামের খিচুনি উঠলে মাওনা চৌরাস্তার আলহেরা হাসপাতালে নেওয়ার পর ৫ মিনিটের মধ্যে সিয়ামের মৃত্যু হয়। ডাক্তার জানিয়েছে সিয়াম ব্রেন ইনজুরিতে মারা গেছে।

নিহতের প্রতিবেশী নজরুল ইসলাম বলেন, মানুষের পা বিচ্ছিন্ন হলেও তার মৃত্যু হয় না। অথচ শিশু সিয়ামের পায়ের তলা কেটে মৃত্যু হয়েছে এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।

এ বিষয়ে পল্লী চিকিৎসক রাহুল বলেন, আহত অবস্থায় সিয়ামকে আমার কাছে নিয়ে আসে। পরে জেশনের দুটি ইনজেকশন দিয়ে অবশ করে তার পায়ের তলায় সেলাই দিয়েছি। সেসময় সিয়াম কান্নাকাটি করেনি। কিন্তু কি কারনে সে মারা গেছে সেটা বুঝতে পারছি না। আপনি কিসের ডাক্তার এমন প্রশ্নের উত্তরে রাহুল বলেন, “আমি যশোর থেকে এই এলাকায় ১৪ বছর যাবৎ সুনামের সহিত চিকিৎসা করে আসছি”।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান মনির মোহনা টেলিভিশন অনলাইনকে বলেন, এ ঘটনায় থানায় কেউ অবগত করেননি। আপনাদের কাছে শুনার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ চলমান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button