ধুমধামে একসঙ্গে চল্লিশ এতিম কন্যার যৌতুকবিহীন বিয়ে

সুবল রায় : দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুরে সম্পন্ন হয়েছে এক ব্যাতিক্রমধর্মী বিয়ের অনুষ্ঠান। শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে জমকালো আয়োজনে সম্পন্ন হয়েছে একসাথে ৪০ জন এতিম কন্যার বিবাহোত্তর সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান। এর আগে শিশু নিকেতন হোমে আশ্রিত এসব এতিম কন্যার যৌতুকবিহীন বিয়ে সম্পন্ন হয়।

আলোকসজ্জা, গেট, ষ্টেজ, ভিডিও, কোন কিছুই কমতি ছিল না দিনাজপুর শহরের গ্রীনভিউ কমিউনিটি সেন্টারে। কমিউনিটি সেন্টারকে সাজানো হয়েছিল রংবেরং-এর বেলুন দিয়ে। সবমিলিয়ে যেনো জমকালো অনুষ্ঠান। কনেবেশে বসে ছিলো ৪০ জন এতিম কন্যা। আর বরবেশে বসেছিলো উদার মন মানসিকতার ৪০ জন যুবক। সম্প্রতি এই ৪০ জন এতিম কন্যাকে যৌতুকবিহীন বিয়ে করেছে এই ৪০ যুবক। শিশু নিকেতনে শৈশব থেকে কৈশোর এবং কৈশোর থেকে যখন যৌবনে পা রাখে, তখন এতিম হিসেবে স্বপ্নেও ভাবেনি নিজেদের এমন বিয়ের অনুষ্ঠানের। আর এতিম মেয়েকে যৌতুকবিহীন বিয়ে করতে পেরে খুশী বরেরাও। পরিবারের সুখ ও শান্তির জন্য সকলের কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন তারা।

এসব এতিম শিশু লালন-পালন হয় লায়ন্স ক্লাবের শিশু নিকেতন হোমে। সমাজসেবা অধিদপ্তরও এই শিশু নিকেতন হোমকে দেকভাল করে থাকেন। বিবাহোত্তর সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজক লায়ন্স ক্লাব ও সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানালেন-প্রতিবছরই এতিম মেয়েদের এমন বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। তবে এবার তা করা বৃহৎ পরিসরে।

ব্যাতিক্রমধর্মী এই বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানে অংশ নেন বরযাত্রীসহ আমন্ত্রিত প্রায় ১২’শ অতিথি। অংশ নেন বিশিষ্টজনেরাও। এই আয়োজনের প্রশংসা করে বর-কনেদের দাম্পত্য জীবনে সুখ ও সমৃদ্ধি কামনা করেন তারাও।

১৯৭৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর লায়ন্স ক্লাবের দিনাজপুর শিশু নিকেতন এ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩’শ এতিম মেয়েকে বিয়ে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button