বান্দরবানের থানচি উপজেলায় পর্যটক ভ্রমনে ফের নিষেধাজ্ঞা

রাহুল বড়ুয়া ছোটন, বান্দরবান প্রতিনিধি

১১ জানুয়ারী থেকে ১৭জানুয়ারী পর্যন্ত বান্দরবানের থানচি উপজেলায় পর্যটক ভ্রমনে নিষেধাজ্ঞা জারি 

আগামী ১১জানুয়ারী থেকে ১৭জানুয়ারী পর্যন্ত বান্দরবানের থানচি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমনে নিষেধাজ্ঞা জারি করে আবারও গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে বান্দরবানের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি।

সোমবার (০৯ জানুয়ারী) সন্ধ্যায় বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানা যায়, আগামী ১১জানুয়ারী থেকে ১৭জানুয়ারী পর্যন্ত বান্দরবানের থানচি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমনে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

গণবিজ্ঞপ্তিতে আরো উল্লেখ করা হয়, বান্দরবানের থানচি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সশস্ত্র বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসীদের উপস্থিতি লক্ষ্য করায় বান্দরবান রিজিয়ন কর্তৃক আধিপত্য বিস্তারমুলক টহল কার্যক্রম পরিচালনা এবং গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যাহত থাকায় পর্যটকদের নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে বান্দরবানের থানচি উপজেলায় আগামী ১১জানুয়ারী থেকে ১৭জানুয়ারী পর্যন্ত স্থানীয় ও বিদেশী পর্যটকদের ভ্রমন নিষিদ্ধ থাকবে।

এদিকে এর আগে বান্দরবান জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কয়েকদফা গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে সর্বশেষ গত ১১ডিসেম্বর বান্দরবান জেলার রুমা ও রোয়াংছড়ি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমণে অনিদিষ্টকালের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল প্রশাসন, যা এখনো বলবৎ রয়েছে।

প্রসঙ্গত, বান্দরবান জেলার বিভিন্ন দুর্গম পাহাড়ে সন্ত্রাসীদের কার্যক্রম বেড়ে যাওয়ায় এবং তাদের নির্মূলে গত ১০অক্টোবর থেকে জেলার রুমা, রোয়াংছড়ি, থানচি এবং আলীকদম উপজেলার সীমান্তবর্তী পাহাড়ি এলাকাগুলোতে যৌথ বাহিনীর সন্ত্রাস বিরোধী অভিযান শুরু হয়। অভিযানে ২০অক্টোবর বান্দরবান ও রাঙামাটির সীমান্তবর্তী বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় অভিযান চালিয়ে নতুন জঙ্গি সংগঠন জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্কিয়ার সাতজন এবং পাহাড়ি বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন কেএনএফ এর তিনজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব, এসময় তাদের কাছ থেকে বিপুল অস্ত্র ও গোলাবারুদ জব্দ করা হয়।

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button