লক্ষ্মীপুরে হত্যা মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড 

মামুনুর রশিদ, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

জেলা সদরে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে কৃষক রুহুল আমিনকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় সিরাজুল ইসলাম, ভুলু মিয়া ও মো. মাসুম নামে তিন আসামিকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেকের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ১ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ মামলায় ৫ জনকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত।

আজ বুধবার (২২ মার্চ) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. রহিবুল ইসলাম এ রায় দেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) জসিম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, কৃষক রুহুল আমিন হত্যায় ৩ জনের যাবজ্জীবন দেওয়া হয়েছে। একই মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ৫ জনকে খালাস দিয়েছে আদালত।

দণ্ডপ্রাপ্ত সিরাজুল ও মাসুম সদর উপজেলার টুমচর ইউনিয়নের দক্ষিণ টুমচর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে এবং ভুলু একই গ্রামের হাবিব উল্যার ছেলে।

খালসাপ্রাপ্তরা হলেন নাজিম উদ্দিন, জাহাঙ্গীর আলম, ইউসুফ, জান্নাত আরা ও হোসনেয়ারা বেগম।

এজাহার সূত্র জানায়, আসামিদের সঙ্গে ভিকটিম রুহুল আমিনদের জমি নিয়ে বিরোধ ছিল। সেই বিরোধ নিয়ে ২০১৬ সালের ১ মার্চ দুপুরে মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে বের হলে রুহুল আমিনকে লাঠিসোটা দিয়ে এলোপাতাড়ি পেটাতে থাকে আসামিরা। এতে তার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে জখম হয়। তাকে বাঁচাতে গেলে ছেলে সুমন মিয়াকেও মারধর করা হয়। পরে আহত অবস্থায় রুহুল আমিনকে সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। একইদিন সুমন বাদী হয়ে বাবাকে হত্যার ঘটনায় ৯ জনের বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

একই বছর ১৮ জুলাই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও সদর মডেল থানায় (উপ-পরিদর্শক) ময়নাল হোসেন আদালতে ৮ জন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

এজাহারভূক্ত সোহাগ হোসেনের বিরুদ্ধে তদন্তকালীন কোন অভিযোগ না পাওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়। দীর্ঘ শুনানি ও সাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত আজ রায় প্রদান করেন।

 

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button