সরকারের ওএমএস কার্যক্রমে খানিকটা স্বস্তিতে সীমিতআয়ের মানুষ

এমআর আসাদ

রাজধানীতে চলমান সরকারের ওএমএস কার্যক্রমে খানিকটা স্বস্তির নিঃশ্বাস নিচ্ছে মানুষ। ডিলার শপের সামনে বাড়ছে লাইন, সেইসঙ্গে বাড়ছে অনিয়ম-ভোগান্তিও। সপ্তাহে দুদিন বেচাকেনার দিনক্ষণ না জানানোয়, দীর্ঘ অপেক্ষার পর ক্রেতাদের ফিরতে হয় খালি হাতে। তারা বলছেন, ওএমএসের সুফল নিশ্চিতে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ও তদারকি জরুরি।

দীর্ঘলাইনে এ অপেক্ষা কম দামে চাল-আটা কেনার জন্য। ওএমএস ডিলারশপে সকালেই দাঁড়িয়ে যান অনেকে। কিন্তু কখন খুলবে দোকান- জানেন না লাইনে দাঁড়ানো ক্রেতারা।

নিত্যপণ্যের ঊর্ধ্বগতির বাজারে, ওএমএসে ৩০ টাকা কেজিতে চাল আর ১৮ টাকা দরে আটা কিনতে পারে সাধারণ মানুষ। ভোক্তাপ্রতি দেয়া হচ্ছে সর্বোচ্চ পাঁচ কেজি। এতে জীবনযাত্রায় কিছুটা স্বস্তি এলেও ভোগান্তিরও শেষ নেই। বেচাকেনার দিন ও বরাদ্দ বাড়ানোর দাবিও জানান ক্রেতারা।

স্থানীয় প্রভাবশালীদের চাপে নিজেদের অসহায়ত্ব জানান ওএমএস ডিলারের কর্মচারীরা। ভোগান্তি ও অনিয়ম দূর করতে নিয়মিত তদারকির দাবি জানান ভুক্তভোগীরা।

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button