২০২৫ সালের মধ্যে দেশের ৩০ লাখ তরুন-তরুণীর কর্মসংস্থান হবে প্রযুক্তি নির্ভর

সুবল রায়-দিনাজপুর প্রতিনিধি

তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, লেখাপড়া শিখে শুধুমাত্র সরকারী চাকুরীর পেছনে না ছুটে তরুন-তরুণীদের প্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষায় শিক্ষিত করে আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির জন্য কাজ করছে সরকার।

এ লক্ষ্যে আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে দেশের ৩০ লাখ তরুন-তরুণীর কর্মসংস্থান প্রযুক্তি নির্ভর শিল্পে নিশ্চিত করা এবং বর্তমানে আইটি সেক্টর থেকে রপ্তানী আয় ১ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার থেকে উন্নীত করে ৫ বিলিয়ন ডলার করা হবে। এ জন্য কাজ করে যাচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশের আর্কিটেক্ট আইসিটি উপদেষ্ঠা সজীব ওয়াজেদ জয়।

আজ মঙ্গলবার (৩১ মে) সকালে দিনাজপুর সরকারী কলেজ ক্যাম্পাসে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টার এর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি বলেন, তরুনদের কর্মসংস্থানের নুতন ঠিকানা হচ্ছে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ইনকিউবিশন সেন্টার। এখানে উৎপাদনমুখী ও কর্মসংস্থানমুখী কাজ করা হবে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে একদিকে যেমন বেকারত্ব দূর হবে, একই সাথে ফ্রিল্যান্সিং করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের মাধ্যমে নিজেরা স্বাবলম্বী হবে। যুব সমাজকে বেকরত্ব থেকে রক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই উদ্যোগ নিয়েছে।

অনুষ্ঠানে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, বাংলাদেশ হাই টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ, শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপন শীর্ষক প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এ.কে.এম আব্দুলল্লাহ খান, দিনাজপুর জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী, দিনাজপুর সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবু বকর সিদ্দিক সরকারী বিভিন্ন দফতরের কর্মকতা, জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দসহ বিশিষ্টজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন শেষে দিনাজপুর সরকারী কলেজ চত্বরে আলোচনা সভা জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

উল্লেখ্য, ৮৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬ তলা বিশিষ্ট দিনাজপুর শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার প্রতিষ্ঠা করা হবে। এটি চালু হলে প্রতিবছর দিনাজপুরের ১ হাজার তরুণ-তরুণী প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button