আইসল্যান্ডে আগ্নেয়গিরিতে ঝর্ণার মতো লাভা উদগিরণ

ডেস্ক রিপোর্ট

আইসল্যান্ডের আগ্নেয়গিরি থেকে ঝর্ণার মতো নির্গত হচ্ছে উত্তপ্ত লাভা। প্রকৃতির এমন আগুনে রূপ দেখতে সেখানে ছুটে যাচ্ছেন বহু পর্যটক। রাজধানী রেইকজাভিকের নিকটবর্তী এলাকাটিতে অগ্ন্যুৎপাতের কারণে আইসল্যান্ডে মহাবিপদ সংকেত ঘোষণা করে আবহাওয়া দপ্তর।

আইসল্যান্ডের রেইক-ইয়াবিক শহরের কাছে স্থানীয় সময় বুধবার দুপুরে অগ্ন্যুৎপাত শুরু করে ফাগরা ডালস ফিয়াক আগ্নেয়গিরি। এর লাভা ছড়িয়ে পড়ে রেইকেনেস উপদ্বীপের প্রায় এক বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে।

আইসল্যান্ডের ভূপদার্থবিদরা জানান, আগ্নেয়গিরি থেকে প্রতি সেকেন্ডে ২০ থেকে ৫০ হাজার লিটার গলিত পাথর বের হচ্ছে। আগ্নেয়গিরির ভয়ঙ্কর সৌন্দর্য দেখতে রাজধানী রিকজাভিক থেকে মাত্র ২৫ কিলোমিটার দূরের ওই এলাকায় ভিড় করেছে অসংখ্য পর্যটক। দুর্ঘটনা এড়াতে পর্যটকদের নিরাপদ দূরত্বে পরামর্শ দিয়েছে দেশটির আবহাওয়া দফতর।

এর আগে, ২০২১ সালের মার্চে সক্রিয় হওয়া আগ্নেয়গিরিটিতে টানা ৬ মাস অগ্ন্যুৎপাত হয়। বর্তমান অগ্ন্যুৎপাতে ক্ষয়ক্ষতির তেমন আশংকা নেই বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী কাতরিন ইয়াকব্সদোকতের।

আইসল্যান্ড ভূমিকম্পের জন্যও বহুল পরিচিত। বিশেষজ্ঞরা জানান, পৃথিবীর বৃহত্তম টেকটোনিক প্লেটগুলোর মধ্যে দুটি রয়েছে আইসল্যান্ডের একেবারে নিচে। তাই এখানে প্রতিনিয়ত ছোটবড় বহু ভূমিকম্প সংঘটিত হচ্ছে। এসব ভূমিকম্প কখনো কখনো আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাত ঘটায়। আইসল্যান্ডে ৩২টি আগ্নেয়গিরি সম্বলিত এলাকা রয়েছে, যা বর্তমানে সক্রিয় এবং সংখ্যায় এটি ইউরোপের সর্বোচ্চ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button