ওএমএস কার্যক্রমে অনিয়মের অভিযোগ

সুরাইয়া মুন্নী

ওএমএস কার্যক্রমে অনিয়মের অভিযোগ করেছেন ক্রেতারা। চাল মিললেও ডিলাররা আটা সরবরাহ করছেন না বলে জানান তারা। আবার চালের একটা বড় অংশই কালোবাজারে বিক্রি করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ আছে। যদিও অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন ডিলাররা।

নিম্নআয়ের মানুষের দুর্ভোগ লাঘবে খাদ্যবান্ধব কর্মসুচির আওতায় সারাদেশে খোলাবাজারে চাল ও আটা বিক্রি কার্যক্রম শুরু করে সরকার। শুরুতে ৮১১টি ডিলারের মাধ্যমে কার্যক্রম শুরু হলেও, চাহিদা বিবেচনায় তা ২ হাজার ৩৬৩-তে উন্নীত করা হয়।

সপ্তাহে ২ দিন করে ৩০ টাকা কেজি দরে জন প্রতি ৫ কেজি করে চাল দেয়া হচ্ছে। কিন্তু তাতে সন্তুষ্ট নয় নিম্নআয়ের মানুষ।কার্যক্রম নিয়ে অনিয়মের অভিযোগও আছে। কথা থাকলেও দেয়া হচ্ছে না আটা। ডিলাররা নিজেদের পকেট ভারি করতে আটা ও চাল কালোবাজারে বিক্রি করে দিচ্ছে বলে জানান ক্রেতারা।

অভিযোগ অস্বীকার করে নিয়মমতোই কার্যক্রম চালানো হচ্ছে বলে দাবি করলেন ডিলাররা। ওএমএস কার্যক্রমে অনিয়মের অভিযোগওএমএস কার্যক্রম বিতর্কমুক্ত রাখতে তদারিক বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন ভোক্তারা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button